ট্রাম্পের সংসার কী ভেঙ্গে যাচ্ছে?

Jan 27, 2018 06:16 pm
ট্রাম্প ও মেলানিয়া

 

যৌন কেলেঙ্কারিতে রীতিমতো বিধ্বস্ত মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প। কয়েকদিন আগেই ফের সামনে এসেছে আর এক পর্নস্টার স্টরমি ড্যানিয়েলসের সঙ্গে ট্রাম্পের সম্পর্কের কথা। তার জেরে প্রায় ভাঙতে বসেছে ট্রাম্পের সংসার। খবর পাওয়া গিয়েছে, সহধর্মিনী মেলানিয়া ট্রাম্প এই ঘটনায় রীতিমতো বিরক্ত। তিনি হোয়াইট হাউস ছেড়ে হোটেলে গিয়ে থাকছেন।

কয়েকদিন আগে সুইজারল্যান্ডের দাভোসে হওয়া বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের মঞ্চে ট্রাম্পের সঙ্গে যাওয়ার কথা ছিল মেলানিয়ার। তবে তিনি তা এড়িয়ে গিয়েছেন। ঘটনায় তিনি বেশ বিরক্ত ও বিধ্বস্ত। ফের সংসার ভাঙতে পারে ট্রাম্পের। এমন পরিস্থিতিও তৈরি হয়েছে বলে অন্দরের খবর।


এর আগে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সময়ও বারবার একাধিক মহিলা ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যৌনকেচ্ছার অভিযোগ এনে সরব হয়েছেন। সেইসময় নানা বিতর্ক হলেও পারিবারিক ক্ষেত্রে মেলানিয়ার সঙ্গে ট্রাম্পের সম্পর্কের অবনতি হয়নি।

তবে এই জানুয়ারিতেই খবর রটে, স্টরমি ড্যানিয়েলস নামে এক পর্ন তারকাকে ২০১৬ সালের মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের আগে ডোনাল্ড ট্রাম্প মুখ বন্ধ রাখতে ১ লক্ষ ৩০ হাজার ডলার ঘুষ দেন। এক যুগ আগে এক যৌনকেচ্ছার প্রেক্ষিতে এই টাকা স্টরমিকে দেওয়া হয় বলে দাবি করা হয় এক রিপোর্টে।

এই টাকা ট্রাম্পের অ্যাটর্নি জেনারেলের কাছ থেকে স্টরমি পেয়েছেন বলে দাবি করা হয়েছে রিপোর্টে। যদিও এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে মুখ খোলেননি স্টরমি। গোটা রিপোর্টই জঞ্জাল বলে উড়িয়ে দিয়েছেন ট্রাম্প। এই প্রসঙ্গে আর এক পর্ন তারকা এলানা ইভান্স মুখ খুলে বলেছেন, স্টরমি একবার তাঁকে বলেছিলেন, ট্রাম্প একযুগ আগে তাঁকে হোটেলে ধাওয়া করে ঘরে নিয়ে যান। ২০০৬ সালের জুলাই মাসে যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হন। তারপরই এলানাকে এই ঘটনা জানিয়েছিলেন স্টরমি।

এই ঘটনা সামনে আসার পর থেকেই ট্রাম্প ও মেলানিয়ার সম্পর্কে চিড় ধরেছে। এবার শোনা যাচ্ছে ট্রাম্পের ঘর ছেড়েছেন মেলানিয়া।

স্টরমি ড্যানিয়েলস নামে এক পর্ন তারকাকে ২০১৬ সালের মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের আগে ডোনাল্ড ট্রাম্প মুখ বন্ধ রাখতে ১ লক্ষ ৩০ হাজার ডলার ঘুষ দেন। এক যুগ আগে এক যৌনকেচ্ছার প্রেক্ষিতে এই টাকা স্টরমিকে দেওয়া হয় বলে দাবি করা হয়েছে এক রিপোর্টে। এই টাকা ট্রাম্পের অ্যাটর্নি জেনারেলের কাছ থেকে স্টরমি পেয়েছেন বলে দাবি করা হয়েছে রিপোর্টে। যদিও এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে মুখ খোলেননি স্টরমি। গোটা রিপোর্টই জঞ্জাল বলে উড়িয়ে দিয়েছেন ট্রাম্প।

এই প্রসঙ্গে আর এক পর্ন তারকা এলানা ইভান্স মুখ খুলে বলেছেন, স্টরমি একবার তাঁকে বলেছিলেন, ট্রাম্প একযুগ আগে তাঁকে হোটেলে ধাওয়া করে ঘরে নিয়ে যান। ২০০৬ সালের জুলাই মাসে যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হন। তারপরই এলানাকে এই ঘটনা জানিয়েছিলেন স্টরমি। সেইসময়ে লেক তাহোয়-এ একটি সেলেব্রিটি গলফ টুর্নামেন্ট চলছিল। ট্রাম্প সেখানে উপস্থিত ছিলেন। সেখানে ছিলেন পর্ন তারকা স্টরমি ও এলানাও। স্টরমির সঙ্গে ট্রাম্পের আলাপ হয় ও রাতে ট্রাম্প স্টরমিকে হোটেলের রুমে নিয়ে যায়।

এলানা বলেছেন, সেখান থেকে স্টরমি তাঁকে ফোন করে আসতে বলেন। ফোনের ওপার থেকে ট্রাম্পও এলানাকে আসতে আহ্বান জানান। বলেন, চলে আসো এলানা। আমরা একসঙ্গে মজা করি। এলানা বলেছেন, সেদিন রাতে তিনি যাননি। পরের দিন সকালে স্টরমি এসে বলেন, ট্রাম্পের সঙ্গে যৌনসঙ্গম করেছেন রাতে। তারপরে এলানা জাতে পারেন ইনি বিজনেস টাইকুন ট্রাম্প। তারপরে আর এতদিন সেই নিয়ে কোনও কথা হয়নি। একদিন আগে স্টরমির সঙ্গে ট্রাম্পের যৌন কেচ্ছা ফাঁস হওয়ায় এলানা মুখ খুলে নিজের অভিজ্ঞতার কথা প্রকাশ করেছেন।