elektrik fatura ödeme doğalgaz fatura ödeme এবার ইহুদিদের তাড়াবে ইসরাইল : অন্য দিগন্ত


এবার ইহুদিদের তাড়াবে ইসরাইল

Jan 09, 2018 09:17 pm
 তিন মাসের মধ্যে বহিষ্কার করার পরিকল্পনা করছে ইসরায়েল

 

হাজার হাজার রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থী ইহুদিকে আগামী তিন মাসের মধ্যে বহিষ্কার করার পরিকল্পনা করছে ইসরায়েল৷ হয় তাঁরা সাময়িক আর্থিক সাহায্য নিয়ে ফেরত যাবেন, নয়তো জেলে যেতে হবে৷


মাত্র কয়েক দিন আগে ইসরায়েলের অভিবাসন ও সীমান্ত কর্তৃপক্ষ একটি বিতর্কিত কর্মসূচি চালু করেছেন, যার লক্ষ্য হলো, ইরিত্রিয়া বা সুদান থেকে আগত রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থীদের কোনো তৃতীয় দেশে যেতে বাধ্য করা, অথবা তাদের অবিলম্বে জেলে পাঠানোর ব্যবস্থা করা৷ যাঁদের জন্য এই কর্মসূচি, তাঁদের এই দুই পন্থার মধ্যে একটিকে বেছে নিতে হবে৷ সেজন্য তাঁরা মার্চ মাস অবধি সময় পাবেন৷
ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু সম্প্রতি মন্ত্রীসভার এক বৈঠকে এই পরিকল্পনার প্রশংসা করে বলেন, ‘‘অনধিকারপ্রবেশকারীরা সহজেই বেছে নিতে পারেন, হয় তারা স্বেচ্ছায়, মর্যাদা সহকারে, মানবিকভাবে ও আইনগতভাবে আমাদের সাথে সহযোগিতা করবেন, অথবা আমাদের অন্য কোনো পন্থা অবলম্বন করতে হবে৷''


মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলির তরফ থেকে তীব্র সমালোচনা সত্ত্বেও নেতানিয়াহু আরো এক ধাপ এগোতে চান, বলে ‘হারেৎস' পত্রিকার বিবরণে প্রকাশ৷ দৃশ্যত ইসরায়েলের জেলগুলি ভরা থাকায় ও জেলের কয়েদিদের জন্য ব্যয়ের পরিপ্রেক্ষিতে বলপূর্বক বহিষ্কারের পন্থাটিবিবেচনা করা হতে পারে৷ তবে জোর করে বহিষ্কারের পরিকল্পনা বর্তমানে ‘বাস্তবসম্মত নয়' বলে ইসরায়েলি কর্মকর্তারা মন্তব্য করেছেন৷


তা সত্ত্বেও ইসরায়েলে বসবাসকারী ইরিত্রীয় ও সুদানীরা অত্যন্ত অসহায় বোধ করেছেন৷ বিশেষ বিশেষ গোষ্ঠীর মানুষরা বলপূর্বক বহিষ্কারের হাত থেকে রেহাই পাবেন, এমন গুজবও শোনা যাচ্ছে৷ তবে কোনো খবরই নির্ভরযোগ্য নয়৷ সকলেই অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছেন৷
আনুমানিক ৩৭,০০০ ইরিত্রীয় ও সুদানী ইসরায়েলে রয়েছেন৷ তাঁরা ২০০৬ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে ইসরায়েলে যান, মিশরের সিনাই উপদ্বীপ হয়ে ইসরায়েলে আসার পথটি তখনও উচ্চ প্রযুক্তির নিরাপত্তা বেষ্টনীর মাধ্যমে বন্ধ করে দেওয়া হয়নি৷


প্রায় কোনো উদ্বাস্তুকেই স্বীকৃতি দেওয়া হয় না
এ পর্যন্ত আফ্রিকান অভিবাসীদের একটি বিপুল অংশকে উদ্বাস্তু হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি৷ ইউএনএইচসিআর-এর বিবৃতি অনুযায়ী, মাত্র আট জন ইরিত্রীয় ও দু'জন সুদানী নাগরিক উদ্বাস্তু হিসেবে ইসরায়েলে স্বীকৃতি পেয়েছেন৷


বাকিদের প্রতি তিন মাস অন্তর তাদের অস্থায়ী রেসিডেন্স পার্মিট নবায়ন করাতে হয়৷ যাঁরা রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন করেননি, তাঁরা যখন পরের বার ভিসার মেয়াদ বাড়াতে আসবেন, তখন তাঁদের একটি প্লেনের টিকিট ও ৩,৫০০ ডলার ভরতুকির প্রস্তাব দেওয়া হবে, যা না নিলে, তাঁদের জেলে যেতে হতে পারে৷ দক্ষিণ ইসরায়েলের হলোট ডিটেনশন কেন্দ্রে যাঁরা আটক রয়েছেন, তাঁদের উপরেও দেশ ছাড়ার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছে৷


বর্তমানে ব্যতিক্রমের বহু ব্যবস্থা রাখা হয়েছে বলে প্রকাশ৷ পরিবারবর্গ, শিশু, ৬০ বছরের বেশি বয়সের মানুষ, যে সব অভিবাসী মানুষপাচারকারীদের শিকার হয়েছেন ও যারা উদ্বাস্তু হিসেবে স্বীকৃতির জন্য আবেদনপত্র দাখিল করেছেন, তাদের সকলকেই আপাতত ছাড় দেওয়া হচ্ছে বলে মিডিয়ার বিবরণ থেকে জানা গেছে৷


ইসরায়েলে রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থীদের এক শতাংশের কম বর্তমানে স্বীকৃতি পেয়ে থাকেন বলে সংশ্লিষ্ট এনজিওগুলো জানাচ্ছে৷ সেক্ষেত্রে ইউরোপে ইরিত্রীয়দের প্রায় ৯০ শতাংশ রাজনৈতিক আশ্রয় পেয়ে থাকেন৷ বস্তুত সুদানী ও ইরিত্রীয়রা ইসরায়েলে এলে, তাদের ‘গোষ্ঠী সুরক্ষা' দেওয়া হয় বলে জানান ‘হটলাইন ফর রিফিউজিস অ্যান্ড মাইগ্র্যান্টস' সংস্থার তামারা নিউম্যান৷ যুগপৎ তাদের রাজনৈতিক আশ্রয়ের জন্য আবেদন না করতে বলা হয়৷


ইসরায়েলে আফ্রিকানদের উদ্বাস্তু হিসেবে দেখা হয় না, বরং তাদের সাধারণত ‘অনধিকারপ্রবেশকারী ও ‘অর্থনৈতিক অভিবাসী' বলে অভিহিত করা হয়ে থাকে৷

ডয়েচে ভেলে