বান্ধবীর বাবাকে বিয়ে করা নিয়ে যা বললেন শাওন

Oct 30, 2017 11:55 am
শাওন তার ব্যক্তিগত জীবনের নানা তথ্য তুলে ধরেছেন


অভিনেত্রী ও হুমায়ুন আহমেদ পত্নী মেহের আফরোজ শাওন নানা ভাবে আলোচিত নারী। আবারও তিনি নতুন করে আলোচনায় এসেছেন একটি টেলিভিশন অনুষ্টানকে কেন্দ্র করে। এটিএন বাংলার এক অনুষ্টানে তিনি বেশ কিছু বিস্ফোরক তথ্য ও মন্তব্য করেছেন। যা নিয়ে এখন চলছে ব্যাপক আলোচনা।

এই অনুষ্টানে শাওন তার ব্যক্তিগত জীবনের নানা তথ্য তুলে ধরেছেন। বলেছেন ‘আমি আমার বান্ধবীর বাবার সঙ্গে প্রেম করিনি বরং আমার বন্ধুর মেয়ের সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব হয়েছিল। হুমায়ূন আহমেদের কন্যা শীলা আহমেদ আমার বন্ধুর মেয়ে!’ বেসরকারি টিভি চ্যানেল এটিএন বাংলার ‘সেন্স অব হিউমার’ অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে হাজির হয়ে কথাগুলো বলেছেন-অভিনেত্রী, পরিচালক ও গায়িকা মেহের আফরোজ শাওন। যিনি বাংলাদেশের জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের দ্বিতীয় স্ত্রী।


অনুষ্ঠানে উপস্থাপক জয় প্রশ্ন করেছিলেন ‘আপনি তো হুমায়ূন আহমেদ স্যারের মেয়ে শীলা আহমেদের বান্ধবী ছিলেন। আপনি কীভাবে তার মেয়ের বান্ধবী হয়ে তার বাবার সঙ্গে প্রেমে জড়ালেন? এর প্রেক্ষিতে শাওন ঐ কথা বলেন। শাওন আরো বলেন,‘আপনি না জেনে আমাকে এ অনুষ্ঠানে ডেকেছেন।’


গত বছর বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়েছিল-‘ডুব’ ছবিটি এ দেশের জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের জীবনী নির্ভর। এই আশঙ্কা থেকে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি সেন্সর বোর্ডে একটি চিঠি দিয়েছেন হুমায়ুন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন। তাতে তিনি শঙ্কা প্রকাশ করেন যে, ‘ডুব’ ছবিটি তার প্রয়াত স্বামী কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের জীবনী নির্ভর কিনা, তা বিবেচনায় রাখার জন্য। এরপর তথ্য মন্ত্রণালয় ও সেন্সরবোর্ড বিভিন্ন রকম যাচাই-বাছাই শেষে গত ৮ আগস্ট ছবিটিকে সেন্সর ছাড়পত্র দেয়। এ প্রসঙ্গেও কথা বলেন জয়।


আর সে অনুষ্ঠানে জয় অভিযোগ শাওনকে বলেন, ‘আপনি নাকি বেশ কিছু পরিমান টাকা খেয়ে ‘ডুব’ ছবির প্রচারণা থেকে নিজেকে বন্ধ রেখেছেন?’ প্রতি উত্তরে শাওন বলেন,‘আমি যেই আশঙ্কাগুলো করছিলাম, অনেকবার ব্যাখা করেছি, আশঙ্কার কথা জানিয়ে আমি চিঠি দিয়েছি সেন্সর বোর্ডে। সেন্সর বোর্ডের গুণী যারা সদস্য রয়েছেন। যারা সম্মানিত এবং দায়িত্বপ্রাপ্ত সদস্যরা আছেন তারা ছবিটা দেখেছেন। এবং পাঁচটি জায়গায় তারা দৃশ্য কর্তন করেছেন।’


শাহরিয়ার নাজিম জয় ‘সেন্স অব হিউমার’ শিরোনামের অনুষ্ঠানটির পরিকল্পনা, উপস্থাপনা ও পরিচালনা নিজেই করেছেন। অনুষ্ঠানে থাকে নাচ, গানসহ রম্য আলোচনা হয়। ইতোমধ্যে অনুষ্টানটি বেশ আলোচিত হয়েছে। এর আগে এই অনুষ্টানে এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমানও উপস্থিত ছিলেন। যেখানে তিনি তার ব্যক্তিগত জীবন আর গানের জগতে প্রবেশের নানা তথ্য তুলে ধরেন।