অল্প বয়সের ৯ সরকারপ্রধান

Oct 17, 2017 07:55 pm
আরো অনেক দেশ পেয়েছে তাঁর মতো নেতা


মাত্র ৩১ বছর বয়সেই অস্ট্রিয়ার চ্যান্সেলর হতে চলেছেন সেবাস্টিয়ান কুর্ৎস৷ তিনি হতে চলেছেন বিশ্বের অন্যতম কম বয়সি সরকার প্রধানদের একজন৷ তবে আরো অনেক দেশ পেয়েছে তাঁর মতো নেতা৷ চলুন জেনে নেই তাঁদের কথা৷


সেবাস্টিয়ান কুর্ৎস, অস্ট্রিয়া
অস্ট্রিয়ান পিপলস পার্টি বা ওভিপি-র নেতা সেবাস্টিয়ান কুর্ৎস-ই একমাত্র তরুণ রাজনীতিবিদ নন, যিনি সরকারপ্রধান হচ্ছেন৷ সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আরো কয়েকজন রাষ্ট্র বা সরকারপ্রধানকে দেখা গেছে, যাঁরা বর্ষীয়ানদের পদ হিসেবে বিবেচিত সরকারপ্রধানের পদটি নিজেদের করে নিয়েছেন৷


মারিও ফ্রিক, লিখটেনস্টাইন
১৯৯৩ সালের ডিসেম্বরে মাত্র ২৮ বছর বয়সে লিখটেনস্টাইনের প্রধানমন্ত্রী হন ফ্রিক৷ তিনি বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সি সরকারপ্রধান৷ বিশ্বের সবচেয়ে ছোট দেশগুলোর মধ্যে ষষ্ঠ অবস্থানে থাকা দেশটি সাতবছর শাসন করেছেন তিনি৷ পেশায় অ্যাটর্নি ফ্রিক পরবর্তীতে ২০০৫ থেকে ২০১৪ সাল অবধি লিখটেনস্টাইন বার অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন৷


পান্ডেলি মাজকো, আলবেনিয়া
প্রথমবার আলেবিনিয়ার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেয়ার সময় মাজকোর বয়স ছিল ৩০ বছর৷ ১৯৯৮ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ১৯৯ সালের অক্টোবর অবধি এবং ২০০২ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে জুলাই পর্যন্ত সেদেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন তিনি৷ বর্তমানে আলবেনিয়ায় প্রবাসী বিষয়ক মন্ত্রী তিনি৷ খুব অল্প বয়সেই রাজনীতিতে প্রবেশ করেন মাজকো, প্রথমবার সংসদ নির্বাচনে অংশ নেন ১৯৯২ সালে৷


ইগর লুকসিক, মন্টিনিগরো
২০১০ সালে মন্টিনিগরোর প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেয়াকালে লুকসিকের বয়স ছিল ৩৪ বছর৷ ২০১২ সাল অবধি সেই দায়িত্ব পালন করেন তিনি৷ তাঁর আগে ২০০৪ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রী হওয়া অবধি সেদেশের অথমন্ত্রী ছিলেন তিনি, অর্থাৎ বয়স ৩০ পেরুনোর আগেই মন্ত্রিত্ব লাভ করেন এই রাজনীতিবিদ৷


বেনজির ভুট্টো, পাকিস্তান
একটি ইসলামিক রাষ্ট্রে মুক্ত নির্বাচনে প্রথমবারের মতো যে নারী প্রধানমন্ত্রী হন, তিনি বেনজির ভুট্টো৷ সেটা ১৯৮৮ সালের কথা, তখন তাঁর বয়স ছিল মাত্র ৩৫ বছর৷ সেবার ১৯৯০ সাল অবধি ক্ষমতায় ছিলেন তিনি৷ এরপর আবার ১৯৯৩ থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন ভুট্টো৷ পরবর্তীতে নির্বাসিত জীবন থেকে দেশের ফেরার পর কিছুদিন পর ২০০৭ সালের ২৭ ডিসেম্বর তিনি খুন হন৷


ভিক্টর ওরবান, হাঙ্গেরি
শরণার্থীবিরোধী হিসেবে পরিচিত হাঙ্গেরির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী এর আগেও একবার প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন৷ ১৯৯৮ থেকে ২০০২ অবধি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন তিনি৷ প্রথমবার দায়িত্ব নেয়ার সময় তাঁর বয়স হয়েছিল ৩৫ বছর৷


আতিফেতে জাহজাগা, কসোভো
২০১১ থেকে ২০১৬ সাল অবধি কসোভোর প্রেসিডেন্ট ছিলেন আতিফেতে জাহজাগা৷ সেদেশের প্রথম নারী প্রসেডেন্ট তিনি৷ মাত্র ৩৬ বছর বয়সে এই দায়িত্ব পান জাহজাগা৷


এমানুয়েল মাক্রোঁ, ফ্রান্স
ফ্রান্সের সবচেয়ে কম বয়সি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁর বয়স ৩৯ বছর৷ চলতি বছরের মে মাসে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার আগে ২০১৪ থেকে ২০১৬ সাল অবধি অর্থনীতি বিষয়ক মন্ত্রী ছিলেন তিনি৷


ইউসুফ চাহেদ, টিউনিশিয়া
টিউনিশিয়ার বর্তমান প্রধানমন্ত্রী চাহেদ ৪০ বছর বয়সে এই দায়িত্ব গ্রহণ করেন৷ গতবছরের আগস্টে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেয়ার আগে দেশটির প্রথম নির্বাচিত সরকারের নানা পদে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি৷

ডয়েচে ভেলে